প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান

প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান | BD Newspaper Today

প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝালকাঠি সুগন্ধা পৌর আদর্শ মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের শহীদ মিনার ভেঙে খেলার মাঠে অবৈধভাবে নির্মিত বানিজ্যিক স্টল ভেঙে দিচ্ছে পৌরসভা। এবং পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদারের নির্দেশে তবে আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা থেকে ভাঙচুরের কাজ শুরু করে শ্রমিকরা।

এবং এর আগে অবৈধভাবে স্টল নির্মাণ করার পরিকল্পনা বাতিল করে দেন পৌর মেয়র। স্টলের গাথুনি ভেঙে ফেলার সময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের নতুন এডহক কমিটির সভাপতি গাজী সানাউল হক, প্রধান শিক্ষক রিতা মন্ডলসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও অভিভাবকরা।
তবে এদিকে স্টল ভাঙার প্রতিবাদ জানিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় একটি রেস্তোরায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সদ্য বিদায়ী সভাপতি শারমিন মৌসুমি কেকা।

তবে এনিয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রিতা মন্ডল অভিযোগ করে বলেছেন, বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি থাকাকালে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শারমিন মৌসুমি কেকা জোরপূর্বক রেজুলেশন করেন। সে অনুযায়ী খেলার মাঠে অবৈধভাবে স্টল নির্মাণ করেন।

তবে শারমিন মৌসুমী কেকা সংবাদ সম্মেলনে আরো বলেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী স্টল নির্মাণ করা হয়েছে।

তবে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং (এডহক) কমিটির সভাপতি গাজী সানাউল হক বলেন, সম্পূর্ণ নিয়ম বহির্ভূতভাবে জোরপূর্বক স্টল নির্মাণের রেজুলেশন করেন সাবেক সভাপতি। এটা অনৈতিক। খেলার মাঠ নষ্ট করে কোন স্থাপনা করতে দেওয়া হবে না।

ঝালকাঠি পৌরসভার মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার বলেন, পৌরসভায় যে কাগজপত্র দিয়ে প্লান নেওয়া হয়েছিল, তা সঠিক ছিল না। তাই প্লান বাতিল করা হয়েছে। অবৈধভাবে গড়ে তোলা স্টল ভেঙে ফেলা হচ্ছে।

Tags: প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bd news, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bd newspaper, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bd news 24 bangla, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bd newspaper all, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bangla newspaper, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bd news 24, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান newspaper, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান news today, প্রশাসন ভাঙছে বিদ্যালয়ের মাঠের দোকান bangladeshi newspaper.

Leave a reply